মহাস্থানগড় কোথায় অবস্থিত

প্রিয় পাঠক আসসালামু আলাইকুম আজকের এই টিউটোরিয়ালে বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ উপজেলায় করতোয়া নদীর পশ্চিম তীরে অবস্থিত মহাস্থানগড়ের পূর্ব নাম কি এই বিষয়ে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করা হয়েছে। আপনি যদি মহাস্থানগড়ের পূর্ব নাম কি এটা না জানেন তাহলে এই টিউটোরিয়াল টি আপনার জন্য, যার মাধ্যমে আপনি মহাস্থানগড়ের পূর্ব নাম কি ছিলো এবং মহাস্থানগড় সম্পর্কে প্রাথমিক কিছু ধারণা পাবেন। 

মহাস্থানগড় কোথায় অবস্থিত


মহাস্থানগড়ের পূর্ব নাম কি

মহাস্থানগড় হলো বাংলাদেশের অন্যতম প্রাচীন পুরাকীর্তি। এক সময় মহাস্থানগড় বাংলার রাজধানী ছিল। পুণ্ড্রবর্ধনের রাজধানী মহাস্থানগড়ের অবস্থান বগুড়া শহর থেকে প্রায় ১৮ কিলোমিটা উত্তরে বগুড়া রংপুর মহাসড়কের পাশে।যিশু খ্রিষ্টের জন্মেরও আগে অর্থাৎ প্রায় আড়াই হাজার বছর পূর্বে এখানে সভ্য জনপদ গড়ে উঠেছিল প্রত্নতাত্ত্বিক ভাবেই তার প্রমাণ মিলেছে। এই নগরী ইতিহাসে পুণ্ড্রবর্ধন বা পুণ্ড্রনগর নামেও পরিচিত ছিল। প্রাচীন বাংলার জনপদ গুলোর মধ্যে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ হলো পুন্ড্রূ। এই জনপদের রাজধানী ছিল পুন্ড্রু নগর। পরবর্তীকালে এর নামকরণ করা হয় মহাস্থানগড়। অর্থাৎ মহাস্থানগড়ের পূর্ব নাম ছিলো পুন্ড্র।

মহাস্থানগড় কোথায় অবস্থিত

মহাস্থানগড়ের অবস্থান বগুড়া শহর থেকে প্রায় ১৮ কিলোমিটার বা প্রায় ৭ মাইল উত্তরে। এখানকার ভূমি সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৩৬ মিটার বা ১১৮ ফুট উঁচু। মহাস্থানগড় বরেন্দ্র অঞ্চলের লাল মাটিতে অবস্থিত যা পলিগঠিত অঞ্চল হতে কিছুটা উঁচু। ১৫-২০ মিটার উপরের অঞ্চলগুলোকে বন্যামুক্ত

মহাস্থানগড় কে আবিষ্কার করেন

মহাস্থানগড়ের আবিষ্কার ও সনাক্তকরণে পিছনে বেশ কয়েকজন বিখ্যাত ব্যক্তিদের অবদান রয়েছে, যাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন ফ্রান্সিস বুকানন হ্যামিল্টন। তিনি ১৮০৮ সালে মহাস্থানগড়কে সনাক্ত ও পরিদর্শন করেন। ১৯৭৯ সালে আলেকজান্ডার কানিংহামই সাইটটি পরিদর্শন করেন এবং মহাস্থানগড় কে পুন্ড্রবর্ধনের রাজধানী হিসেবে চিহ্নিত করেন।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url